মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

যুব উন্নয়ন

সমাজ সেবা অধিদপ্তরের পরিবর্তে যুব সংগঠনের নিবন্ধন দেবে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর। যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরকে এ ক্ষমতা দিয়ে এ সংক্রান্ত আইনের খসড়া নীতিগত অনুমোদ দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

সোমববার নবগঠিত সরকারের মন্ত্রিসভার দ্বিতীয় বৈঠকে ‘যুব সংগঠন (নিবন্ধন ও নিয়ন্ত্রণ) আইন-২০১৩’-এর খসড়া অনুমোদনের মধ্য দিয়ে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরকে এ ক্ষমতা দেওয়া হয়। আইনটি জাতীয় সংসদে পাস হওয়ার পর থেকে সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তর ক্ষমতা পাবে।

পাশপাশি নিবন্ধনের শর্তভঙ্গসহ আইন অমান্য করলে ছয় মাসের কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হবে সংশ্লিষ্টদের।

বৈঠকের পর মন্ত্রিপরিষদ সম্মেলন কক্ষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা  এসব তথ্য দেন।  এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

প্রেস ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, যুব সমাজের উন্নয়নে মন্ত্রিসভা আইনের খসড়াটি নীতিগত অনুমোদন দেয়।  

তিনি বলেন, দেশে এখন ১৪ হাজারেরও বেশি যুব উন্নয়ন সংগঠন রয়েছে। বর্তমান সরকারের পলিসির (নীতি) মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে দেশের যুব সমাজকে উৎপাদক্ষম শক্তি হিসেবে তৈরি করা। এজন্য সরকার এ আইন তৈরি করাকে জরুরি মনে করছে। জাতীয় যুব নীতির আলোকে এ আইন তৈরি করা হয়েছে। এতে যুব সংগঠন নিবন্ধন, নিবন্ধনের শর্ত, নিবন্ধন বাতিল ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয় উঠে এসেছে।

এ আইনের আওতায় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি উপদেষ্টা পরিষদও গঠন করা হবে। একটি জাতীয় যুব কাউন্সিলও এতে কাজ করবে এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অধীনে এসব কিছু কাজ করবে।

নিবন্ধনের এখতিয়ার

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বা তার অনুমেদিত সংশ্লিষ্ট জলা কর্মকর্তারা সংগঠনগুলোর নিবন্ধনের অনুমোদন দিতে পারবে।

শাস্তি

নিবন্ধনের শর্তভঙ্গ, ভুল তথ্য দিয়ে নিবন্ধন নিলে এবং আইন  অমান্য করলে সর্বোচ্চ ছয় মাসের কারাদণ্ড অথবা ৫০ হাজার টাকা জারিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন সংশ্লিষ্ট সংগঠন বা কর্মকর্তারা।